শুক্রবার , আগস্ট ২৩ ২০১৯
Breaking News
Home / বিভাগীয় সংবাদ / ময়মনসিংহ বিভাগ / চোখে ঝাপসা দেখেন ময়মনসিংহের সাংবাদিক রফিক !

চোখে ঝাপসা দেখেন ময়মনসিংহের সাংবাদিক রফিক !


সাহিদুল ইসলাম,ময়মনসিংহ থেকে ফিরে: ময়মনসিংহে প্রথিতযশা দুইজন সাংবাদিক গোয়েন্দা সংস্থার (ডিবি পুলিশ) একজন উপ পরিদর্শকের অমানুষিক নির্যাতনের শিকার হয়ে এখন অমানবিক জীবন যাপন করছেন । নির্যাতনের শিকার সাংবাদিকরা মানসিকভাবে পঙ্গুপ্রায় । তাদের পরিবারে নেমে এসেছে ঘোর অমানিষা ।

নির্যাতনের শিকার সাংবাদিগণ হলেন, ময়মনসিংহ প্রতিদিন ও অপরাধ সংবাদ অনলাইনের সম্পাদক খায়রুল আলম রফিক এবং অনলাইন বিডি প্রেসের বাংলাদেশ প্রতিনিধি ও মানবাধিকার কর্মী আব্দুল কাইয়ুম ।

সারাদেশের পাশাপাশি স্থানীয় বাসিন্দা হওয়ার সুবাদে এই দুই সাংবাদিক ময়মনসিংহের উন্নয়ন, ঘুষ, দুনর্ীতি, সামাজিক, শিক্ষা , রাজনৈতিক এবং অপরাধ সম্পর্কিত সংবাদ প্রাধান্য দিয়ে নিজেদের পত্রিকায় প্রকাশ করতে থাকেন ।
প্রকাশিত সংবাদগুলি বস্তুনিষ্ঠ হওয়ায় যেমনি পাঠকমহলে আলোড়নের ঝড় তোলে ঠিক তেমনি অপরাধী ও ঘুষ-দুর্নীতিবাাজরা যারপরনাই আক্রমণাত্বকভাবে তেলে বেগুনে ক্ষেপে ওঠে ।

ক্রমশ: প্রকাশিত সংবাদগুলিতে বেড়িয়ে আসতে থাকে অপকর্মকারী ঘুষখোড় দুনর্ীতিবাজদের থলের বিড়াল । যার প্রেক্ষিতে মড়িয়া হয়ে পড়ে তারা ।

তাদের বিরুদ্ধে প্রকাশিত সংবাদগুলি যেকোনমূল্যে রুখতেই হবে। যদিও ততদিন দমেননি নাছোড়বান্দা তুখোড় আর নবীন এই দুই সাংবাদিক । তবে, শেষ পর্যন্ত তারা দুনর্ীতিবাজদের পরিকল্পিত পাতানো নকশা থেকে বেড়িয়ে আসতে পারেননি । আজ করুণভাবে দমে গেছেন সাংবাদিকদ্বয় !

একের পর এক মিথ্যা সাজানো অভিযোগের ফঁাদে আটকে পড়েন এই দুই সাংবাদিক । অভিযোগগুলি বাস্তবায়িত হয় প্রতিপক্ষ ঘুষখোড় দুনর্ীতিবাজদের দায়ের করা মামলা ।
এই মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে গিয়ে আজ ছন্নছাড়া দশায় পড়েছেন দুই সাংবাদিক। আঁচড় পড়েছে তাদের পরিবারেও ।
অভিযোগ, ঘুষখোড় দুনর্ীতিবাজরা ঐ ডিবি পুলিশের সাব ইন্সপেক্টরের (এসআই) স্মরনাপন্ন হন ।

ময়মনসিংহে স্মরণকালে এই এসআই দুনর্ীতি, অনিয়ম, আটক বাণিজ্যের শীর্ষে । তার নাম আক্রাম হোসেন ।
খোঁজ খবর নিয়ে জানা গেছে, জামালপুরের বাসিন্দা এই এসআই চাকুরি জীবনের অধিকাংশ সময় পার করেছেন ময়মনসিংহে ।

কখনও ফাঁড়ি পুলিশে, কখনও কোতয়ালী মডেল থানায়, আবার কখনও গোয়েন্দা শাখায় । সেই সুবাদে ঘুষখোড়, মাদক কারবারিসহ অপরাধীদের সাথে আক্রামের বিশেষ সখ্যতা গড়ে ওঠে ।


ঐদুই সাংবাদিকের বস্তুনিষ্ঠ সংবাদে কেঁপে ওঠে ঘুষখোড়, দুনর্ীতিবাজ, মাদক কারবারি, অপরাধীদের সাজানো বাগান । সংবাদের তোপে তাসের ঘরের মত ভাঙতে থাকে তাদের মসনদ ।

এইসব দুনর্ীতিবাজ এবং মাদক ব্যবসায়ীরা মিলে এবং এসআই আক্রামের যোগসাজশে এই দুই সাংবাদিকের বিরুদ্ধে দেয়া হয় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মিথ্যা অভিযোগের সাজানো মামলা ।

মামলা করার আগেই এসআই আক্রামের নেতৃত্বে আটক করে দুই সাংবাদিককে আনা হয় ডিবি পুলিশ কার্যালয়ে ।
ডিবি কার্যালয়ে রাতভর নির্যাতন করে পরদিন মামলা দিয়ে আবার রিমান্ডে এনে নির্যাতন করা হয় তন্মধ্যে একজন সাংবাদিককে । এসব নির্যাতনের ছবিও তোলা হয় । সেই ছবি ছেড়ে দেয়া হয় ফেসবুকসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ।

সাংবাদিক খায়রুল আলম রফিক জানান, অপরাধী, মাদক কারবারি, ঘুষখোড় দুনর্ীতিবাজদের বিরুদ্ধে আমি বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ প্রকাশ করে আসছিলাম ।

একজন ক্ষমতাধর মুখোশধারী , সাধুবেশী দুনর্ীতিবাজের রোষানলে পড়ি । আমাকে ফঁাসাবে বলে হুমকি দিতে থাকে ।
তৎপ্রেক্ষিতে আমি কোতয়ালী মডেল থানায় তার বিরুদ্ধে জিডি করি । জিডির পর থানার উপ পরিদর্শক (এসআই) নুর মোহাম্মদ তদন্তের দায়িত্ব পান ।


উপরন্তু আমি জিডি করার দীর্ঘ একমাস পর উপরোক্ত ক্ষমতাধর মুখোশধারী , সাধুবেশী দুনর্ীতিবাজ ঐ ব্যক্তি উল্টো আমার বিরুদ্ধেই জিডি (মামলা) করেন । এই মামলারও তদন্তকারী কর্মকর্তা নুর মোহাম্মদ ।

আমার অভিযোগ আমলে না নিয়ে উল্টো আমি যার বিরুদ্ধে অভিযোগ করলাম তাকেই বাদি করে আমার বিরুদ্ধে মামলা করার পেছনে হাত আছে এসআই আক্রামের ।
মামলায় আমার বিরুদ্ধে যেসব অভিযোগ আনা হয়েছে তা মামলার বাদী নিজেই এবং তার নিজস্ব লোক দিয়ে তৈরি করেছেন ।

মিথ্যা অভিযোগের মামলায় আমি কারাগারে থাকাবস্থায় ইউটিউবের একটি রেকর্ডে মামলার বাদী মোঃ ইদ্রিস খান প্রকাশ করেছেন । সেখানে বাদীর অপরাধের সব তথ্য বিদ্যমান । ২৯ জানুয়ারি ইউটিউবে আপডেট হওয়া ভিডিওটি ভাইরাল হয়েছে ।


সেখানে পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও তৎকালীন জেলা প্রশাসক (ডিসি) ড. সুভাষ চন্দ্র বিশ্বাসকে জড়ানো হয় ।
মামলার প্রেক্ষিতে আমাকে কারাগারে থাকতে হয়েছে । আমার পরিবারকে যারপর নাই মানবেতর জীবন যাপন করতে হয়েছে।

বাচ্চাদের লেখাপড়া বন্ধ হওয়ার উপক্রম হয় । আমার অবর্তমানে বৃদ্ধা মার চিকিৎসা কার্যক্রম বন্ধ হয়ে যায় । সঠিক বিচারের প্রাথর্ী হয়ে স্ত্রী ও শিশু সন্তানদের আদালতের বারান্দা ও কারাগারের ফটকে ঘুরতে ঘুরতে ক্লান্ত হতে হয়েছে ।
ডিবি পুলিশের অকথ্য নির্যাতনের শিকার হয়ে আমি একরাতও ঘুমাতে পারিনাই । নির্যাতনের চিত্রগুলি এখনও চোখে ভাসে ।
ব্যথায় সারা শরীর জর্জরিত । কালো কাপড় মুড়িয়ে আমার চোখ বেঁধে পায়ের আঙ্গুলে , লিঙ্গে গরম পানি দিয়ে বিদ্যুতের শর্ট দেয়া হয় । আরও অনেক নির্যাতন করা হয়েছে আমাকে । যা ভাষায় প্রকাশ করতে পারছি না । আমি এখন চোখে ঝাপসা দেখি ।

আমাকে দিনের পর দিন রাতের পর রাত না খাইয়ে রাখা হয়েছে । স্ত্রী সন্তান, আত্নীয়- স্বজনকে সাক্ষাত করতে দেয়া হয়নি । এখন যারপরনাই ক্ষান্ত হয়ে গেছি ।
২৪ জুলাই ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছি । সেখানের চিকিৎসক ডাঃ আমিনুল ইসলাম জানিয়ে দিয়েছেন । আমার তীব্র রক্তস্বল্পতা দেখা দিয়েছে । ৯০ দিন পূর্ণ রেস্টে থাকতে বলেছেন । অসুস্থতার পরও আদালতে হাজিরা দিতে হয় ।


মামলার বাদী, এসআইয়ের ধমকি আছে । আবারও নাকি মামলা হবে আমার বিরুদ্ধে ! তারাই করবে । হুমকি দেয় । এই হুমকি অব্যাহত আছে । সাংবাদিক খায়রুল আলম রফিক বলেন, আমি বঁাচতে চাই । স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী,আইজিপি বরাবর আবেদন করেছি । প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ চাই ।
নির্যাতনের শিকার আব্দুল কাইয়ুম বিষয়ে জানা গেছে, ময়মনসিংহ শহরের কৃষ্টপুর থেকে বিকালে ডিবির এসআই আক্রাম আটক করে।

প্রভাবশালী ক্ষমতাধর, মুখোশধারী , সাধুবেশী ঐ একই দুনর্ীতিবাজ ব্যক্তি পরদিন ত্রিশাল থানায় তার বিরুদ্ধে ডিজিটাল আইনে মামলা করে।


যেদিন তার নামে মামলা হয় । সেদিন দৈনিক পত্রিকাগুলিতে তাকে ডলারসহ আটকের সংবাদ প্রকাশ করে । তারও চোখ বেঁধে এসআই আক্রামসহ কয়েকজন অমানুষিক নির্যাতন করে । এখন তিনি সুস্থ্যভাবে চলতে ফিরতে পারছেন না। পঙ্গুপ্রায় ।
সাংবাদিকের চোখ বঁাধা ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিষয়ে জানতে চাইলে মামলার বাদী ইদ্রিস খান বলেন, এই ছবি আমাকে অন্যজন দিয়েছে, সব ঠিক হয়ে যাবে ।

About Mohammad Firoz

Check Also

ময়মনসিংহে মাদক নির্মূলে কাজ করছে পুলিশ- এডিশননাল ডিআইজি আক্কাস উদ্দিন

মোঃ খায়রুল আলম রফিক : ময়মনসিংহ রেঞ্জ পুলিশের এডিশনাল ডিআইজি ড. মোঃ আক্কাছ উদ্দিন ভূইয়া …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ব্রেকিং নিউজ
হেলমেট ব্যবহার ও দুর্ঘটনা রোধে অনন্য ভুমিকা রংপুর রেঞ্জ পুলিশে দ্বিতীয় বারের মত কুড়িগ্রাম ট্রাফিক বিভাগ শ্রেষ্ঠ গ্রামীণ সড়কে গবাদিপশু পটুয়াখালীতে ভগবান শ্রীকৃষ্ণের জন্মাষ্টমী উৎসব পালিত ছে‌লেধরা স‌ন্দে‌হে মান‌সিক ভারসাম্যহীন নারী‌কে বেঁধে পিটু‌নি যশোরের বেনাপোলে নিরাপত্তা প্রহরীর হাতে ব্যাটারি চোর আটক মক্কায় হঠাৎ স্ট্রোক করে রেমিটেন্স যুদ্ধা কক্সবাজারের রমজান আলীর মৃত্যু মক্কায় বঙ্গবন্ধুর শাহাদত বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত বাউফলে বিক্রয় নিষিদ্ধ পিরাহনা ও আফ্রিকান মাগুর আটক। জরিমানা আদায় তালতলীতে আশ্রয়ন প্রকল্পের নানা সমস্যায় জর্জরিত,মানবতার জীবন যাপন! মক্কায় সড়ক দুর্ঘটনায় এক জন বাংলাদেশীর মৃত্যু, দুইজন আহত