মাতারবাড়ী কয়লা বিদ্যুৎ প্রকল্পে তিন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে নিয়োগ বাণিজ্যের অভিযোগ:

456

নিজস্ব প্রতিবেদক, মহেশখালী : মাতারবাড়ীতে ১২০০ মেগাওয়াট কয়লা ভিত্তিক তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণ প্রকল্পে টাকার বিনিময়ে শ্রমিক নিয়োগ, অতঃপর স্থানীয় শ্রমিকদের ছাঁটাই সহ হুমকি দেওয়া, আবার পুনরায় টাকার বিনিময়ে আত্মীয় ও দেশীয় লোক দের নিয়োগ দেওয়ার অভিযোগ ওঠেছে জিও হারবাল কোম্পানীর ৩ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে। তারা হলেন জিও হারবাল কোম্পানির সাইট ইঞ্জিনিয়ার উত্তম ঘোষ,ফোরম্যান আতিকুর ও সুপারভাইজার ফখরুল এর বিরুদ্ধে।

এমনকি দেশের মহামারী অবস্থায় জিও হারবাল কোম্পানির কর্মরত ৩৫ জনকে ছাঁটাই করা হয়েছে বলে জানা যায়। এদিকে চাকরি থেকে ছাঁটাই করার পর শ্রমিকরা টাকার বিনিময়ে চাকরি নেওয়ার বিষয়টি জানাজানি হয়। এমনকি তারা খোদ ঐ তিন কর্মকর্তার কাছ থেকেই টাকা চেয়ে বসে। তাদের সাথে বিষয়টি নিয়ে ঐ তিন অসাধু কর্মকর্তার সাথে বাড়াবাড়ি হয় বলে জানান এক শ্রমিক। তিনি বলেন আমাদের কোম্পানিতে চাকরি নেওয়ার সময় প্রত্যেকের কাছ থেকে মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে চাকরি দিয়েছে। কিন্তু এই অসাধু কর্মকর্তারা আমাদের কে ছাঁটাই করে পূনরায় টাকার বিনিময়ে অন্য লোকদের চাকরি দিচ্ছে। আমরা এর তীব্র প্রতিবাদ জানাই।জিও হারবাল কোম্পানীর এক শ্রমিক আলতাফ মাহামুদ বলেন আমার থেকে উত্তম ঘোষ চাকরি দেওয়ার সময় ৭০০০০ টাকা নিয়েছে।আরেক শ্রমিক নিশান দাবি করে বসেন ১লক্ষ ২০ হাজার টাকা নিয়ে চাকরি দেন আতিক। তাদের অভিযগ শেষ হতেই আরেক শ্রমিক কান্না জড়িত কণ্ঠে বলে মায়ের স্বর্ণ বিক্রি করে আতিক কে ১লক্ষ ২০ হাজার টাকার বিনিময়ে চাকরিতে ঢুকে এখন চাকরি থেকে ছাটাই করে দিয়েছে এখন পরিবার পরিজন নিয়ে না খেয়ে থাকতে হচ্ছে বলে জানান। এভাবেই ঐ তিন অসাধু কর্মকর্তা শ্রমিকদের কাছ থেকে প্রায় ১কোটি ২০লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ ওঠেছে। কোন শ্রমিক থেকে কত টাকার বিনিমেয় চাকুরি দেওয়া হয়েছে তার একটি তালিকা ও তৈরি করা হয়েছে বলে। এতে প্রায় ১কোটি ২০ লক্ষ টাকার লেনদেন হয়েছে। কিন্তু তাতে তারা ক্ষিপ্ত হয় নি আমাদের কে ছাঁটাই করে আবার ও টাকার বিনিময়ে শ্রমিক নিয়োগ দিচ্ছে।

এদিকে ছাঁটাই হওয়া কিছু শ্রমিক ঐ অভিযুক্ত তিন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে তাদের দেওয়া টাকার জন্য চাপ দিলে বিষয়টি স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মাষ্টার মোহাম্মদ উল্লাহ এর কাছে আসে। জানা যায় স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান তাৎক্ষণিক শ্রমিকদের দেওয়া অভিযোগ বিশ্লেষণ করে ঐ অসাধু তিন কর্মকর্তার কাছ থেকে শ্রমিকদের কাছ থেকে নেওয়া প্রায় ৩লক্ষ টাকা উদ্ধার করে শ্রমিকদের মাঝে ফিরিয়ে দেন।

এবিষয়ে অভিযুক্ত জিও কোম্পানির সাইট ইঞ্জিনিয়ার উত্তম ঘোষ এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি অভিযোগ শিকার করে জানান শ্রমিকদের দেওয়া অভিযোগ আমরা স্থানীয় চেয়ারম্যানের মাধ্যমে সমাধান করেছি । এর পর আর কোন শ্রমিক অভিযোগ করেছে কিনা আমাদের জানা নেই বলে ফোন কেটে দেন।

আরেক অভিযুক্ত জিও হারবাল কোম্পানির ফোরম্যান আতিকুর জানান শ্রমিকদের অভিযোগ আংশিক সত্য আর আংশিক মিথ্যা বলে জানান।
:
আরেক অভিযুক্ত জিও হারবাল কোম্পানির সুপারভাইজার ফখরুল জানান তার মাধ্যমে একজনের থেকে টাকা নিয়ে চাকুরি দেওয়ার অভিযোগ শিকার করেন এবং তা স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান এর মাধ্যমে টাকা ফেরত দেওয়ার কথা জানান।

এবিষয়ে মাতারবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ উল্লাহ বলেন, মাতারবাড়ী কয়লা বিদ্যুৎ প্রকল্পে জিও হারবালহ কোম্পানির তিন কর্মকর্তা উত্তম ঘোষ, আতিকুর ও ফখরুল এর বিরুদ্ধে টাকা দিয়ে শ্রমিক নিয়োগ দেওয়ার অভিযোগ ওঠেছে। আমি তাৎক্ষণিক ভাবে শ্রমিকদের অভিযোগ আমলে নিয়ে ঐ অভিযুক্ত তিন কর্মকর্তার কাছ থেকে ১৬ জন শ্রমিকের ৩ লক্ষ টাকা উদ্ধার করে শ্রমিকদের ফিরিয়ে দি। এর বাইরে আর ও লেনদেন করলে আমার জানা নেই। তবে শ্রমিকদের অভিযোগ পেলেই বিষয়টি নিয়ে উদ্ধতন কর্তৃপক্ষের সাথে কথা বলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ায় জন্য অনুরোধ করব।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here